কুরআন আলোকিত জীবনের পথপ্রদর্শক

লাশের পাশে বসে পড়ার জন্য কুরআন নাযিল হয়নি। কবরের পাশে দাড়িয়ে পড়ার জন্যও কুরআন পৃথিবীতে আসেনি। চার দিন, চল্লিশা, মৃত্যু বার্ষিকীতে পড়ার কিতাবও কুরআন নয়। রমযানে খতমের পর খতম পড়ে মসজিদের ইমাম ডেকে বখশানোর জন্যও কুরআন জগতে আগমন করে নি। সবিনা খতমও কুআন নাযিলের উদ্দেশ্য নয়। তাবিজ বানিয়ে গলায় ঝুলানোর জন্য কুরআন পৃথিবীতে অবতীর্ণ হয়নি।

কুরআন হলো জিবিত মানুষের মুক্তির মূলমন্ত্র। মৃত্যুর পর ঐ ব্যক্তির নাজাতের সুপারিশকারী যে জিবিতবস্থায় কুরআন পড়েছে। কুরআন বিশ্বমানবতার মুক্তির সনদ ও গঠনতন্ত্র। হেদায়েতের আলোকবর্তিকা। কুরআন হলো নূর। কুরআন আলোকিত জীবনের পথপ্রদর্শক। কুরআন আমার মহান রবের অমীয় বাণী। কুরআন দ্যা কমপ্লিট কোড অব লাইফ। কুরআন নাযিল করা হয়েছে মৃত নয় জিবিত মানুষের কল্যাণে সীরাতে মুস্তাকিম নির্দেশের জন্য। মানুষকে কুফুরি, শিরক, স্বেচ্ছাচারীতা, হিংসা-বিদ্বেষ, অহংকার, আত্বম্ভরিতা, পরশ্রীকাতরতা, অন্ধকারাচ্ছন্ন জীবন ও জগত থেকে ফিরিয়ে এক চির আলোকোজ্জল পথে আহবান করার জন্য। সৃষ্টির পূজা ছেড়ে এক স্রষ্টার তাওহীদের দীক্ষা দেওয়ার জন্য। শিক্ষা দেওয়ার জন্য সরল সঠিক জান্নাতের পথ। তাই কুরআন পড়ুন মৃত্যুর আগেই, পরে নয়। বুঝে বুঝে পড়ার চেষ্টা করুন। কুরআনকে শুধু মুখে নয় জীবনে চর্চা করুন। বদলে যাবেন নিজ। বদলে দিবেন সমাজকে। কুরআনের রঙে রঙীন হোন। কুরআনের আদর্শকে বুকে লালন করুন। শুধু মুখে নয়।

লেখক: মুফতি যাকারিয়্যা মাহমূদ মাদানী
বি. এ অনার্স, এম. এ, এমফিল: মদীনা বিশ্ববিদ্যালয়, সৌদি আরব।
পরিচালক: ভয়েস অব ইসলাম।
প্রিন্সিপাল মাদরাসাতুল মাদীনাহ লিল বানাত, মিরপুর-১, ঢাকা।
প্রধান গবেষক: আস-সুন্নাহ ফাউন্ডেশন।
সম্পাদক ও প্রকাশক: ডেইলি মাই নিউজ।
jakariyamahmud@gmail.com

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

আরও দেখুন

Close
Back to top button
Close